দেবশ্রীকে শোভনের বিরুদ্ধে দিল্লিতে কেউ ‘প্লান্ট’ করেছিল, বিস্ফোরক বৈশাখী

দেবময় ঘোষ, কলকাতা: অভিনেত্রী তথা রায়দিঘির বিধায়ক দেবশ্রী রায় শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তৃনমূলে ‘বৃহত্তর ষড়যন্ত্রের অংশ।’ সেক্ষেত্রে, দেবশ্রী রায় বিজেপিতে যোগ দিতে এলে থাকবেন না শোভন এবং তাঁর বন্ধু বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। দেবশ্রী রায় প্রসঙ্গে সাফ জানিয়ে দিলেন বৈশাখী।

রাজ্য বিজেপির অন্দরে যে প্রশ্ন সব থেকে বেশি ঘুরপাক খাচ্ছে তা হলো, কে রায়দিঘির বিধায়ক তথা একসময় বাংলা সিনেমার নায়িকা দেবশ্রী রায়কে দিল্লিতে বিজেপির সদর দফতরে ডেকে পাঠিয়েছিলেন ? এই প্রশ্নের উত্তর মিলছে না। রহস্য ঘনীভূত হচ্ছে। রাজ্য বিজেপি সূত্রে যা খবর, শোভন-বৈশাখীর দিল্লি গমনের খবর পেয়ে খুব সকালেই দিল্লি পৌঁছন মুকুল।
কারণ, রাজ্যের পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন মঙ্গলবার মুকুলকে তড়িঘড়ি দিল্লি পৌঁছতে বলেছিলেন।

মুকুল দিল্লিতে দীনদয়াল উপাধ্যায় মার্গে বিজেপির সদর দফতরে পৌঁছে দেখেন ইতিমধ্যেই দেবশ্রী রায় বসে রয়েছেন। তা দেখে তিনি রীতিমত চমকে ওঠেন। ঘনিষ্ঠ মহলে নাকি মুকুল বলেছেন, দেবশ্রীর সঙ্গে কয়েক বছর কথা নেই। উনি বিজেপিতে আসতে চাইছেন তা জানা ছিল না। এরপর শোভন-বৈশাখী দফতরে প্রবেশ করেন।

এবিষয়ে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য, ‘দেবশ্রী রায়কে চিনি না। জীবনে ১ বার-ই দেখেছি। আমাদের পার্টিতে যোগদানের সময় ওকে যে ভাবে ‘প্লান্ট’ করা হলো তা সত্যি বিস্ময়ের। দিল্লির পার্টি অফিসে দেবশ্রী রায়ের আসা কাকতলীয় হতে পারে না। কেউ না কেউ থাকবেই এর পিছনে। যার মাধ্যমে তিনি দিল্লি গিয়েছিলেন।’

বৈশাখী-শোভন অরবিন্দ মেননেকে ওই দিনই (১৪ অগস্ট, যেদিন দিল্লিতে তাঁরা বিজেপিতে যোগদান করেন) দেবশ্রীর ব্যাপারে প্রশ্ন করেন। মেনন তাঁদের জানান, কার সুপারিশে দেবশ্রী দিল্লিতে এসেছেন তা তাঁর জানা নেই। তবে উনি বলেছেন যে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে চেনেন। শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সুপারিশেই বিজেপিতে যোগদান করতে চান।’

বৈশাখী জানান, ‘দিল্লির বিজেপি দফতর (৬এ দীন দয়াল উপাধ্যায় মার্গের দফতর) একটি কর্পোরেট দফতর বলা চলে। ওই দফতরে কেউ এত সহজে প্রবেশ করিয়ে পারে না। দেবশ্রী রায় কারও সঙ্গে যোগাযোগ করেই এসেছিলেন। শোভন’দা অরবিন্দ মেননকে জানিয়ে দেবশ্রী যদি বিজেপি তে যোগদান করেন তবে তিনি যোগ দিতে ইচ্ছুক নন।’

বৈশাখী জানান, অরবিন্দ মেনন তাঁকে এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়কে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন এখন কিংবা ভবিষ্যতে দেবশ্রী রায় বিজেপিতে যোগ দেবেন না।

দেবশ্রীর উপর শোভনের রাগের কারণ কী? বৈশাখীর মতে, যেদিন থেকে শোভন দক্ষিণ ২৪পরগনা এবং রায়দিঘির দায়িত্বে ছিলেন তবে থেকেই দেবশ্রীর উপর ক্ষোভ রয়েছে। দেবশ্রীকে কে পাঠাতে পারে দিল্লিতে? তিন ধরণের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন বৈশাখী।

১. এক বরিষ্ঠ বিজেপি নেতার বন্ধু বিজেপির-ই বিজ্ঞাপনের দায়িত্বে আছেন। তার মাধ্যমে দেবশ্রী বর্ধমানে চিন্তন বৈঠক চলাকালীন বিজেপিতে যোগদান বিষয়টি পাকা করবে চেয়েছিলেন। কারণ হয়ত দেবশ্রীর মনে হয়েছিল শোভন একবার বিজেপিতে ঢুকে গেল সেখানে তার তেমন গুরুত্ব নেই।

২. মুকুল রায়ের সঙ্গে তিনি একই বিমানে দিল্লি গিয়েছিলেন।

৩. বিধাননগর -দমদম এলাকার আরেকজন হেভিওয়েট বিজেপি নেতার কোথায় তিনি বিজেপির দিল্লি অফিসে গিয়েছিলেন।

TheLogicalNews

Disclaimer: This story is auto-aggregated by a computer program and has not been created or edited by TheLogicalNews. Publisher: Kolkata 24×7

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *